১৮. কামরস

সহযোগী মূলক পরভিাষা

রূপক পরিভাষা

সহযোগী রূপক পরভিাষা

উপমান পরিভাষা

চারিত্রিক পরিভাষা

ছদ্মনাম পরিভাষা

১৮. কামরস
Mucus (মিউকাস)/ ‘مخاط’ (মুখাত্ব)

ভূমিকা (Introduction)
এটি বাঙালী পৌরাণিক চরিত্রায়ন সত্তা সারণীবাঙালী পৌরাণিক মূলক সত্তা পরিবারের বাঙালী পৌরাণিক রূপান্তরিত মূলক সত্তা বিশেষ। এর বাঙালী পৌরাণিক প্রকৃত মূলক সত্তা যৌনরস। এর রূপান্তরিত বাঙালী পৌরাণিক মূলক সত্তা কামরস। এর বাঙালী পৌরাণিক রূপক পরিভাষা ঘোষক। এর বাঙালী পৌরাণিক উপমান পরিভাষা তীর  ও পাথর। এর বাঙালী পৌরাণিক চারিত্রিক পরিভাষা অনীকউল্কা এবং এর বাঙালী পৌরাণিক ছদ্মনাম পরিভাষা উষ্ণজলবিজলা। এটি একটি বাঙালী পৌরাণিক রূপক প্রধান মূলক সত্তা

অভিধা (Appellation)
কামরস (বাপৌরূ)বি যৌনরস, আদিরস, mucus, ‘مخاط’ (মুখাত্ব) (রূপ্রশ) উশিজ, উল্কা, তীর, পাথর, বজ্র, রক্ষী, সৈন্য (ইপৌচা) আবাবিল (.ﺍﺑﺎﺑﻴﻝ), বেলাল (.ﺒﻼﻞ), মুয়াজ্জিন (.ﻤﺆﺬﻦ), হাজর (حجر) (দেপ্র) এটি বাঙালী পৌরাণিক চরিত্রায়ন সত্তা সারণীকামরস পরিবার প্রধান এবং একটি পৌরাণিক পরিভাষা বিশেষ (সংজ্ঞা) সাধারণত; কামোত্তেজনার সময়ে জনিত্র হতে নিঃসৃত রসকে বাংলায় ‘কামরস বলা হয় (বাপৌছ) উষ্ণজল ও বিজলা (বাপৌচা) অনীক ও উল্কা (বাপৌউ) তীর ও পাথর (বাপৌরূ) ঘোষক (বাপৌমূ) কামরস {বাং. কাম + বাং. রস}

কামরসের সংজ্ঞা (Definition of mucus)
সাধারণত; কামোত্তেজনার সময়ে জনিত্র হতে নিঃসৃত রসকে কামরস বলে।

পারিবারিক অবস্থান (Domestic position)

মূলক

রূপক উপমান চারিত্রিক

ছদ্মনাম

কামরস ঘোষক তীর ও পাথর অনীক ও উল্কা উষ্ণজল ও বিজলা

প্রাথমিক পরিপত্র (Primary circular)
কামরসের আভিধানিক, রূপক, উপমান, চারিত্রিক ও ছদ্মনাম পরিভাষা।

বাঙালী পৌরাণিক মূলক সত্তা; কামরস।
বাংলা আভিধানিক প্রতিশব্দ; অঙ্গিরস, আদ্যরস, কামস্বাদ, জননরস, যৌনরস, শৃঙ্গার ও শৃঙ্গাররস।
বাঙালী পৌরাণিক রূপক; ষোষক
বাঙালী পৌরাণিক উপমান; কঙ্কর, তীর, নুড়ি, পাথর, বজ্র, বাজ, বিজল, শক্তিশেল, শিলা, শেল, সেনা ও সৈন্য।
বাঙালী পৌরাণিক চারিত্রিক; অনীক, উল্কা, কালকেয়, কুলিশ, কুষ্মাণ্ড, গন্ধর্ব ও ভার্গব।
বাঙালী পৌরাণিক ছদ্মনাম; অগ্নিবাণ, অগ্নিবৃষ্টি, অন্তবাণ, অশনি, আগ্নেয়াস্ত্র, ইন্দ্রসেনা, ইষু, উজ্জ্বলরস, উল্কাপাত, উল্কাপিণ্ড, উশনা, উশিজ, উষ্ণজল, একাঘ্নী, ঐন্দ্রাস্ত্র, কটক, কড়কা, কদুষ্ণ, কালভৈরব, গঙ্গাপুত্র, গণ, গোরাল, জিম্ভকাস্ত্র, ঠাটা, দিব্যাস্ত্র, দেবসেনা, নভোরজ, নারায়ণাস্ত্র, নারায়ণীসেনা, পিতৃগণ, প্রচারক, প্রিয়ম্বদ, বজ্রশায়ক, বজ্রাগ্নি, বড়বাগ্নি, বরুণবাণ, বিজলা, বিমানবাহিনী, ব্রহ্মাস্ত্র, মিতকনে, যোগেশ্বরী, শস্ত্র, সংশপ্তক, সোহাগা, স্বিন্ন, হাহা ও হুহু।

বাংলা, ইংরেজি ও আরবি (Bengali, English and Arabic)

বাংলা

ইংরেজি

আরবি

১৮. কামরস Mucus (মিউকাস) ‘مخاط’ (মুখাত্ব)
১৮/০. যৌনরস Firing (ফায়ারিং) ‘حرق’ (হারক্ব)
১৮/০১. ঘোষক Announcer (অ্যানাউন্সার) ‘ﻤﺆﺬﻦ’ (মুয়াজ্জিন)
১৮/০২. তীর Arrow (অ্যারৌ) ‘رمح’ (রামহা)
১৮/০৩. পাথর Stone (স্টোন) ‘حجر’ (হাজরা)
১৮/০৪. উল্কা Meteor (মিটিয়র) ‘شِهَاب’ (শিহাব)
১৮/০৫. উষ্ণজল Discharge (ডিসচার্জ) ‘تفريغ’ (তাফরিগ)
১৮/০৬. বিজলা Moist (মোইস্ট) ‘ﺒﻼﻞ’ (বেলাল)

কামরসের প্রকারভেদ (Variations of mucus)
শ্বরবিজ্ঞানে; কামরস দুই প্রকার। যথা; ১. পুংরস ও ২. যোনিরস।

. পুংরস (Penile sap)
কামোত্তেজনা বা কামের সময়ে শিশ্ন হতে নিঃসৃত রসকে পুংরস বলে।

. যোনিরস (Vaginal sap)
কামোত্তেজনা বা কামের সময়ে যোনি হতে নিঃসৃত রসকে যোনিরস বলে।

যোনিরস আবার তিন প্রকার। যথা; ১. শৃঙ্গার ২. উশিজ ও ৩. বজ্র।

. শৃঙ্গার (Oozy)
রমণ আরম্ভ করার পূর্বে স্ত্রী জননাঙ্গ হতে যে রস নিঃসৃত হয় তাকে শৃঙ্গার বলে।

. উশিজ (Splashy)
রমণ আরম্ভ করার প্রায় ১৮০ হতে ২০০ শ্বাস (৭ মিনিট) পরে স্ত্রী জননাঙ্গ হতে যে উত্তপ্তরস নির্গহ হয় তাকে উশিজ বলে।

. বজ্র (Eruption)
রমণ আরম্ভ করার প্রায় ৩৬০ শ্বাস (১৪ মিনিট) পরে স্ত্রী জননাঙ্গ হতে অত্যন্ত উত্তপ্ত যে রস নির্গত হয় তাকে বজ্র বলে।

এছাড়াও; কামরসকে আবারো তিনভাগে ভাগ করা যায়। যথা; ১. আদিরস ২. শৃঙ্গাররস ও ৩. বজ্ররস।

. আদিরস (Oilily)
কামোত্তেজনার সময় ও কাম আরম্ভ করার পূর্বে শিশ্ন ও যোনি উভয় অঙ্গ থেকে নিঃসৃত রসকে আদিরস বলে।

. শৃঙ্গাররস (Slithery)
কামকেলিতে রতো হওয়ার গড়ে ১৮০ হতে ২০০ শ্বাস (৭ মিনিট) পরে স্ত্রী জননাঙ্গ হতে নিঃসৃত রসকে শৃঙ্গাররস বলে।

. বজ্ররস (Thundering)
কামকেলিতে জননপথে বীর্য নিক্ষেপ না করে ইন্দ্রিয় সঞ্চালন করতে থাকলে গড়ে ৩৬০ শ্বাস (১৪ মিনিট) পরে স্ত্রী জননাঙ্গ হতে যে রস নিঃসৃত হয় তাকে বজ্ররস বলে।

কামরসের উপকার (Benefits of mucus)
১.   কামরস উপস্থকে পিচ্ছিল করে ও কাম ক্রিয়া সহজ করে।
২.   কামরস কামকেলিতে অধিক তৃপ্তি দান করে।
৩.   বজ্র সাঁই বা কাঁই আগমনের সঙ্কেত নির্দেশ করে।

কামরসের পরিচয় (Identity of mucus)
এটি বাঙালী পৌরাণিক চরিত্রায়ন সত্তা সারণীযৌনরস বাঙালী পৌরাণিক প্রকৃত মূলক সত্তাবাঙালী পৌরাণিক রূপান্তরিত মূলক সত্তা বিশেষ। শুক্র, সুধা ও মধুরস ব্যতীত কামকেলির সময়ে জনিত্র হতে নিঃসৃত রসকে কামরস বলা হয়। এটি; দ্বিপস্থ জীবের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি রস। কামোত্তেজনা আরম্ভ হওয়ার পর হতে কামনদী অতিক্রম করার পূর্ব পর্যন্ত নিঃসৃত সর্বপ্রকার রসকেই কামরস বলা হয়। কামোত্তেজনার কারণে; কামকেলি আরম্ভ করার পূর্বে শিশ্ন ও জননপথ হতে নিঃসৃত রসই আদিরস। কামকেলিতে রত হওয়ার পর স্ত্রী জননপথ হতে শৃঙ্গাররস নিঃসৃত হয়। শুক্রপাতহীনভাবে প্রায় পাঁচশতশ্বাস ইন্দ্রিয় সঞ্চালনের পর স্ত্রী জননপথ হতে যে রস নিঃসৃত হয় তাকেই স্বেদরস বলে। অর্থাৎ; সর্বশেষে স্বেদরস নিঃসৃত হয় এবং স্বেদরস নিঃসৃত হওয়ার প্রায় পাঁচশতশ্বাস পরে সুধারস আগমন করে এবং প্রায় হাজার শ্বাস পরে মধুরসের নিঃসরণ ঘটে থাকে।

কাম ক্রিয়া আরম্ভ করার পূর্বে শৃঙ্গারের মাধ্যমে পরিপূর্ণ কামোদ্দিপনা জাগরিত হলে; শিশ্ন বা কবন্ধের মাথায় জলের মতো আঠালো যে পদার্থ দেখা যায়; তা-ই যৌনরস নামে পরিচিত। কাম বা রমণ ক্রিয়ার সামান্য সময় পূর্বে ও পরে শুক্র, সুধা ও মধু এ ৩টি রস ব্যতীত উপস্থ হতে নির্গত অন্যান্য পিচ্ছিল রসগুলোকে একত্রে ঘোষক বা কামরস বা যৌনরস বলে। তবে; শ্বরবিজ্ঞানে কাম বা রমণ আরম্ভ করার পূর্বে উপস্থ হতে নির্গত আঠালো আদিরসকেই ঘোষক দেবতা বলা হয়। রমণ বা মৈথুনের ঘোষণা প্রদান করে বলেই আদিরসকে ঘোষক দেবতা বলা হয়। কারণ; উপস্থ হতে ঘোষক দেবতা আগমন করে কামের ঘোষণা না করলে; কোনো ক্রমেই স্বাভাবিক গমন সম্ভব নয়। মৈথুনের পূর্বে ঘোষক দেবতার দ্বারা উপস্থের উভয় অঙ্গ পিচ্ছিল না হলে; তা গমনের উপযোগী হয় না। ঘোষক দেবতার ঘোষণার পূর্বে গমনে রত হলে উপস্থের উভয় অঙ্গের ব্যাপক ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা অধিক। সেজন্য; মৈথুনের পূর্বে ঘোষক দেবতার আগমন মৈথুনের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ ঘোষক দেবতাকে আরবীয় পুরাণে বেলাল (ﺑﻟﻞ) বা আদি ঘোষক বলা হয়েছে।

আরবীয় পুরাণে কামরসকে বেলাল বলার কারণ (What cause Bilal to say mucus in the Arabian mythology?)
বেলাল [ﺒﻼﻞ] বিণ সিক্ত, ভেজা, স্নাত, জলবৎ, আর্দ্রতা, স্যাঁতসেঁতে বি পিচ্ছিল রস, আঠালো রস (প্র) আরবীয় পৌরাণিক মনীষীদের রূপক বর্ণনা মতে; বেলাল মুসলমানদের সমবেত পূজার প্রথম ঘোষক ছিলেন। অথবা কুরানে বর্ণিত মুহাম্মাদের প্রতি বিশ্বাসী মুসলমানদের বিশ্বাস মতে; বেলাল সমবেত উপাসনার প্রথম ঘোষণাকারী ছিলেন।

আরবি বালাল (ﺑﻼﻞ) পরিভাষা হতে বেলাল (ﺑﻟﻞ) পরিভাষাটির উৎপত্তি। এজন্য; আরব্য অলি আব্দালরা তাঁদের রূপক বর্ণনায় কামরস বা বেলালকে (ﺑﻟﻞ) আদি-ঘোষক দেবতা বা প্রথম মুয়াজ্জিন (ﻤﺆﺬﻦ) বলে থাকে। কারণ; কামরস (‘ﺑﻟﻞ’. বেলাল) ব্যতীত কোনো ক্রমেই কাম সম্ভব নয়। হ্যাঁ কামরস ব্যতীত যদিও বিকল্পভাবে জেলি দ্বারা মৈথন করা যায়। কিন্তু সাঁই সাধন বা কাঁই সাধন করা সম্ভব নয়। তাই; কামরসকে আরবীয় শ্বরবিজ্ঞানে; আদি-ঘোষক বা আওয়ালুল মুয়াজ্জিনও (ﺍﻮﺍﻞ ﺍﻟﻤﺆﺬﻦ) বলা হয়। আলোচ্য ঘোষক বা কামরসকে অগ্নিকন্যার আগুনের গোলা বলা হয়। আবার উষ্ণজল, সাপ, বাঘ, কুম্ভীর, যম ও পাথর ইত্যাদি বলা হয়। ঘোষণা বা আযান (ﺍﺬﻦ) ব্যতীত উপাসনা (কাম) বা ইবাদত (ﻋﺑﺎﺪﺓ) হয় না। আর কাম উপাসনা (কাম) ব্যতীত নির্বাণ (প্রবজ্যা) বা সালাত (ﺻﻟﻮﺓ) হয় না এবং স্তম্ভন ব্যতীত সাঁইদর্শন ও কাঁইদর্শন সম্ভব নয়। পরিশেষে বলা যায়; কামযজ্ঞ সঠিকভাবে সম্পাদনের জন্য কামরস বা বেলালের অবশ্য প্রয়োজন। এটি; কামের আগে উপস্থিত হয়। কামযজ্ঞ আরম্ভ করার ঘোষণা প্রদান করে। এজন্য; আরবীয় পুরাণে বেলালকে প্রথম ঘোষক বা আওয়ালুল মুয়াজ্জিন (ﺍﻮﺍﻞ ﺍﻟﻤﺆﺬﻦ) বলা হয়।

প্রতি কামকেলিতে কতবার কামরস বের হয়? (How many times comes mucus every fucking?)
স্বাভাবিক অবস্থায় কামকেলিতে তিনবার কামরস বের হয়। ১৭৫ শ্বাস পর; ৩৫০ শ্বাস পর এবং ৫০০ শ্বাস পর। তারপর; আর বের হয় না। যদি কোনো সাধক এই ৫০০ শ্বাস (২১ মিনিট) পর্যন্ত ইন্দ্রিয় বৈঠা বাইতে পারে; তবে সে অটলত্ব অর্জন করতে পারে। কামযজ্ঞ আরম্ভ করার ২১ মিনিট পর হতে স্তম্ভন পর্যায় আরম্ভ হয়। এ পর্যায়ের স্থায়িত্ব আরও ২১ মিনিট। কেবল মহাযোগ প্রহরেই স্তম্ভনের গুরুত্ব সর্বাধিক। মহাযোগ প্রহর হলে ১০০০ শ্বাস পরে অমৃত বের হয়। সুবিজ্ঞ গুরু-গোঁসাইদের নিকট হতে বিষয়টি আরও উত্তমভাবে জেনে নেওয়ার পরামর্শ রইল।

(তথ্যসূত্র; আত্মতত্ত্ব ভেদ (৪র্থ খণ্ড); লেখক; বলন কাঁইজি)

তথ্যসূত্র (References)

(Theology's number formula of omniscient theologian lordship Bolon)

১ মূলক সংখ্যা সূত্র (Radical number formula)
"আত্মদর্শনের বিষয়বস্তুর পরিমাণ দ্বারা নতুন মূলক সংখ্যা সৃষ্টি করা যায়।"

রূপক সংখ্যা সূত্র (Metaphors number formula)

২ যোজক সূত্র (Adder formula)
"শ্বরবিজ্ঞানে ভিন্ন ভিন্ন মূলক সংখ্যা-সহগ যোগ করে নতুন যোজক রূপক সংখ্যা সৃষ্টি করা যায়; কিন্তু, গণিতে ভিন্ন ভিন্ন সংখ্যা-সহগ যোগ করে নতুন রূপক সংখ্যা সৃষ্টি করা যায় না।"

৩ গুণক সূত্র (Multiplier formula)
"শ্বরবিজ্ঞানে এক বা একাধিক মূলক-সংখ্যার গুণফল দ্বারা নতুন গুণক রূপক সংখ্যা সৃষ্টি করা যায়; কিন্তু, মূলক সংখ্যার কোন পরিবর্তন হয় না।"

৪ স্থাপক সূত্র (Installer formula)
"শ্বরবিজ্ঞানে; এক বা একাধিক মূলক সংখ্যা ভিন্ন ভিন্ন ভাবে স্থাপন করে নতুন স্থাপক রূপক সংখ্যা সৃষ্টি করা যায়; কিন্তু, মূলক সংখ্যার কোন পরিবর্তন হয় না।"

৫ শূন্যক সূত্র (Zero formula)
"শ্বরবিজ্ঞানে মূলক সংখ্যার ভিতরে ও ডানে শূন্য দিয়ে নতুন শূন্যক রূপক সংখ্যা সৃষ্টি করা যায়; কিন্তু, মূলক সংখ্যার কোন পরিবর্তন হয় না।"

< উৎস
[] উচ্চারণ ও ব্যুৎপত্তির জন্য ব্যবহৃত
() ব্যুৎপত্তির জন্য ব্যবহৃত
> থেকে
√ ধাতু
=> দ্রষ্টব্য
 পদান্তর
:-) লিঙ্গান্তর
 অতএব
× গুণ
+ যোগ
- বিয়োগ
÷ ভাগ

Here, at PrepBootstrap, we offer a great, 70% rate for each seller, regardless of any restrictions, such as volume, date of entry, etc.
There are a number of reasons why you should join us:
  • A great 70% flat rate for your items.
  • Fast response/approval times. Many sites take weeks to process a theme or template. And if it gets rejected, there is another iteration. We have aliminated this, and made the process very fast. It only takes up to 72 hours for a template/theme to get reviewed.
  • We are not an exclusive marketplace. This means that you can sell your items on PrepBootstrap, as well as on any other marketplate, and thus increase your earning potential.

পৌরাণিক চরিত্রায়ন সত্তা সারণী

উপস্থ (শিশ্ন-যোনি) কানাই,(যোনি) কামরস (যৌনরস) বলাই (শিশ্ন) বৈতরণী (যোনিপথ) ভগ (যোনিমুখ) কাম (সঙ্গম) অজ্ঞতা অন্যায় অশান্তি অবিশ্বাসী
অর্ধদ্বার আগধড় উপহার আশ্রম ভৃগু (জরায়ুমুখ) স্ফীতাঙ্গ (স্তন) চন্দ্রচেতনা (যৌনোত্তেজনা) আশীর্বাদ আয়ু ইঙ্গিত ডান
চক্ষু জরায়ু জীবনীশক্তি দেহযন্ত্র উপাসক কিশোরী অতীতকাহিনী জন্ম জ্ঞান তীর্থযাত্রা দেহাংশ
দেহ নর নরদেহ নারী দুগ্ধ কৈশোরকাল উপমা ন্যায় পবিত্রতা পাঁচশতশ্বাস পুরুষ
নাসিকা পঞ্চবায়ু পঞ্চরস পরকিনী নারীদেহ গর্ভকাল গবেষণা প্রকৃতপথ প্রয়াণ বন্ধু বর্তমানজন্ম
পালনকর্তা প্রসাদ প্রেমিক বসন পাছধড় প্রথমপ্রহর চিন্তা বাম বিনয় বিশ্বাসী ব্যর্থতা
বিদ্যুৎ বৃদ্ধা মানুষ মুষ্ক বার্ধক্য মুমুর্ষুতা পুরুষত্ব ভালোবাসা মন মোটাশিরা যৌবন
রজ রজপট্টি রজস্বলা শুক্র মূত্র যৌবনকাল মনোযোগ রজকাল শত্রু শান্তি শুক্রপাত
শুক্রপাতকারী শ্বাস সন্তান সৃষ্টিকর্তা শুক্রধর শেষপ্রহর মূলনীতি সন্তানপালন সপ্তকর্ম স্বভাব হাজারশ্বাস
ADVERTISEMENT
error: Content is protected !!